‘বন্দুকযুদ্ধ’: টেকনাফে নিহত ৩ রোহিঙ্গা

কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনায় তিন রোহিঙ্গা ‘ডাকাত’ নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ছয়টার দিকে টেকনাফের শালবন-জাদিমুরা পাহাড়ি এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। র‍্যাবের দাবি, নিহতরা রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী জাকির বাহিনীর সদস্য ও ডাকাত।

র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেন, সন্ধ্যা পর্যন্ত ঘটনাস্থল থেকে ২টি পিস্তল, ২টি বন্দুক, ৫টি ওয়ান শুটারগানসহ মোট ৯টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ২৫টি গুলি উদ্ধার হয়েছে। ঘটনাস্থলে র‍্যাবের তল্লাশি চলছে।

র‍্যাব সূত্র জানায়, জাকির বাহিনীর অবস্থানের খবর পেয়ে মাঠে নামে র‍্যাব। সন্ধ্যায় পাহাড়ি এলাকার একটি আস্তানায় হানা দিলে সন্ত্রাসীরা র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। আত্মরক্ষার্থে র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। বন্দুকযুদ্ধের পর র‍্যাব ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে। এর মধ্যে একজনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। তিনি হলেন টেকনাফের শালবন ও জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কুখ্যাত ডাকাত জাকির বাহিনীর প্রধান জাকির হোসেন। তার বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, মাদকসহ ২০টির বেশি মামলা রয়েছে। নিহত অপর দুজনও জাকির বাহিনীর সদস্য বলে ধারণা করছে র‌্যাব। তবে তাঁদের পরিচয় শনাক্ত হয়নি।

 

The post ‘বন্দুকযুদ্ধ’: টেকনাফে নিহত ৩ রোহিঙ্গা appeared first on Bhorer Kagoj.

বিস্তারিত পড়ুন::